১৪ দলের শরিকদের বিরোধী দলে থাকাই ভালো: ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের শরিক দলগুলোকে বিরোধী দলে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‌‘রাজনৈতিক কারণে ১৪ দলের শরিকদের বিরোধী দলে থাকাই ভালো। তার দল চায় সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করে শক্তিশালী বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করবেন শরিক দলের এমপিরা। এতে সরকারের ভুল সংশোধন এবং সমালোচনার সুযোগ থাকবে।’

বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এসব কথা বলেন তিনি। আগামী শনিবার (১৯ জানুয়ারি) আওয়ামী লীগের মহাসমাবেশের ভেন্যু এবং অন্যান্য প্রস্তুতি পরিদর্শনে সেখানে গিয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘১৪ দল আওয়ামী লীগের আদর্শিক জোট। আর জাতীয় পার্টি কৌশলগত জোটের অংশ। তারা শুধু নির্বাচনি শরিক। কাজেই ১৪ দলের শরিকরা সংসদে কী ভূমিকায় থাকবেন সেটা আলোচনার মাধ্যমেই ঠিক করা হবে।’

এ সময় জোটে কোনও টানাপড়েন নেই বলে দাবি করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘পরাজিত বিএনপি বেপরোয়া হলেও সরকার ধৈর্যশীল। আওয়ামী লীগকে জনগণ ভোট দিয়ে বিপুল বিজয় উপহার দিয়েছে। আর এ বিজয় জনগণের প্রতি বিশাল দায়িত্বের নামান্তর। তাই সরকার জনগণের অসুবিধা হয়, কষ্ট হয়, এমন কোনও কিছু করবে না।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর ঐক্যফ্রন্টে ভাঙনের সুর দেখা গেছে। জোটটির নেতাদের একেকজন একেকভাবে কথা বলছেন। তাদের বক্তব্য শুনে মনে হয়, তারা বেপরোয়া, ভয়ঙ্কর।’

নির্বাচনে যেমন আওয়ামী লীগের পক্ষে বিপুল গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছিল, ১৯ তারিখের সমাবেশেও তেমনি গণজোয়ার সৃষ্টি হবে বলে আশা প্রকাশ করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক।