মুসাফির কাকে বলে, মুসাফির হওয়ার শর্ত জেনে নিন

যে ব্যক্তি ভ্রমণ বা সফর করে তাকে সফররত অবস্থায় মুসাফির বলে। আবার যখন নিজ বাড়ী বা বাসভবনে চলে আসে তখন শরীয়াতের পরিভাষায় তাকে বলে মুকীম। মুকীম অর্থ হলো নিজ বাসস্থানে অবস্থানকারী ব্যক্তি অর্থাৎ মুসাফির নন।

 

কোন ব্যক্তি যদি কমপক্ষে ৪৮ (শর‌্য়ী) মাইল বা প্রায় ৮৮ কি.মি. দুরুত্ব গমন করার ইচ্ছাকরে, তাহলে শহরবাসী নিজ শহরের সীমা ও গ্রামবাসী নিজ ইউনিয়ন বা পৌরসভার সীমা অতিক্রম করার পর থেকে মুসাফির বলে জন্য হবে। তখন থেকেই নামাজের কসর সহ মুসাফিরের অন্যান্য হুকুম তার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। (শামী-২/৫৯৯-৬০২, হিন্দিয়া-১/১৩৭, আহসানুল ফাতাওয়া-৪/৯৪-৯৫)

 

في رد المحتار:(ج2ص599) وأشار إلى أنه يشترط مفارقة ما كان من توابع موضع الافاقة كربض المصر وهوما حول المدينة من بيوت ومساكن فإنه في حكم المصر،

যে সীমানা থেকে মুসাফির বলে গণ্য হয়েছিল; সেই সীমাতে প্রবেশের পর থেকেই মুকীম হয়ে যাবে। (শামী-২/৬০৪)

 

في رد المحتار:(ج2ص604) ( قوله حتى يدخل موضع مقامه ) أي الذي فارق بيوته سواء دخله بنية الاجتياز أو دخله لقضاء حاجة لأن مصره متعين للإقامة فلا يحتاج إلى نية جوهرة ، ودخل في موضع المقام ما ألحق به كالربض كما أفاده القهستاني

আর কারো যদি একাধিক আবাস্থল থাকে তাহলে তার যে কোনটি্র এলাকার মঝে প্রবেশ করলে সে মুকিম হয়ে যাবে। (বাদায়েউস সানায়ে-১/২৮০, শামী-২/৬০৪, হিন্দিয়া-১/১৪২)

 

في بدائع الصنائع:(ج1ص280) الوطن الأصلي يجوز أن يكون واحدا أو أكثر من ذلك بأن كان له أهل ودار في بلدتين أو أكثر ولم يكن من نية أهله الخروج منها ، وإن كان هو ينتقل من أهل إلى أهل في السنة ، حتى أنه لو خرج مسافرا من بلدة فيها أهله ودخل في أي بلدةمن البلاد التي فيها أهله فيصير مقيما من غير نية الإقامة ،

এছাড়াও নিজ আবাস্থল ছাড়া অন্য কোথাও যদি ১৫ দিন বা তার চেয়ে বেশী অবস্থানের নিয়ত করে তাহলে সে মুকিম হয়ে যাবে। (হিন্দিয়া-১/১৪২)

 

في الفنوى الهندية:(ج1ص142) ولا يزال على حكم السفر حتى ينوي الإقامة في بلدة أو قرية خمسة عشر يوما أو أكثر ، كذا في الهداية

চার রাকাআত বিশিষ্ট নামাজে প্রথম বৈঠক (২য় রাকাআতের পর যে বৈঠক হয়)এ “ওয়া ‘আলী মুহাম্মাদ” পর্যন্ত পড়ে ফেললে নামাযের শেষে সেজদায়ে সাহু করতে হবে। (শামী-২/৫৪৫)

Author Details

Hard work can bring a smile on your face.

Related Posts

Post thumbnail
11 months ago

সফর ও কসর সংক্রান্ত জরুরী মাসায়েল জেনে নিন (পর্ব-১)

মুসাফির কে? যে ব্যক্তি কমপক্ষে ৪৮মাইল(৭৭.২৪৬৪কিলোমিটার)সফর করার নিয়তে নিজ আবাদীর লোকালয় থেকে বের হয়েছে, সে শরীআতের পরিভাষায় মুসাফির হিসেবে গন্য...

Post thumbnail
11 months ago

সফর ও কসর সংক্রান্ত জরুরী মাসায়েল জেনে নিন (শেষ পর্ব)

শুধু মাত্র মুক্তাদী মুসাফির হলেঃ মাসআলাঃ ইমাম মুকীম এবং মুক্তাদী মুসাফির হলে সে ইমামের অনুকরনে চার রাকাআতই পড়বে।–আল-মাবসূত ২/৯৪।  ...

Leave a Reply

Comment has been close by Administrator!