২০১৮ সালের হজের প্রাক-নিবন্ধন শেষের পথে!

তথ্যপ্রযুক্তির সর্বোচ্চ সুবিধা কাজে লাগিয়ে হজ গমন ত্রুটিমুক্ত ও সহজ করতে প্রাক-নিবন্ধন ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে।

যারা হজে যেতে চান, তাদের প্রথম ধাপে প্রাক-নিবন্ধন করতে হবে। ২০১৭ সালে হজে যেতে ইচ্ছুক ব্যক্তিদের প্রাক-নিবন্ধন শেষ হয়েছে। প্রাক-নিবন্ধন তালিকা থেকে দ্বিতীয় ধাপের নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ করে হজযাত্রীরা হজের প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন, এখন শুধু অপেক্ষা সৌদি আরব যাওয়ার।

হজের প্রাক-নিবন্ধন করতে ৩০ হাজার টাকা, জাতীয় পরিচয়পত্র, (১৮ বছরের কম হলে অভিভাবকের জাতীয় পরিচয়পত্রের সঙ্গে জন্ম নিবন্ধন সনদ), পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি, মোবাইল ফোন নম্বর ও এমআরপি পাসপোর্ট প্রয়োজন হয়।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজে যেতে চাইলে জেলা প্রশাসক অফিস, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার, পৌর ডিজিটাল সেন্টার, সিটি করপোরেশন ডিজিটাল সেন্টার থেকে প্রাক-নিবন্ধন করা যাবে।
আর বেসরাকারিভাবে যেতে চাইলে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদিত হজ এজেন্সি থেকে নিবন্ধন করা যাবে।

প্রাক-নিবন্ধনের টাকা জমাসাপেক্ষে ব্যাংক থেকে প্রাক-নিবন্ধন ক্রমিক নম্বর দেওয়া হয় ও মোবাইল ফোনে এসএমএস করে প্রাক-নিবন্ধনের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

হজ ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্যমতে ২০১৮ সালে হজে যেতে ইচ্ছুকরা প্রাক-নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ করছেন। ইতিমধ্যে ১ লাখ ৩১৭ জন প্রাক-নিবন্ধন সম্পন্ন করেছেন। পূর্ব নিয়মমতে সরকারি ১০ হাজার কোটা সংরক্ষণ করা হলে আর মাত্র ১৭ হাজার হজযাত্রী নিবন্ধনের সুযোগ পাবেন।

চলতি হজ মৌসুমে (২০১৭ সালে) বাংলাদেশ থেকে কোটা অনুযায়ী ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজে যেতে পারবেন। আগামী বছর (২০১৮ সালে) যদি হজের কোটা না বাড়ে তাহলে এ সংখ্যা অতিক্রম করলে নিয়মমতো হজযাত্রীরা অপেক্ষমান তালিকায় থাকবেন এবং পরবর্তী বছর (২০১৯ সালে) হজে যাবেন। তাই ২০১৮ সালে হজ গমনে ইচ্ছুকদের এখনই নিবন্ধন প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে।
.
আমার ওয়েব সাইট থেকে ঘোরে আসেন Mixtrickbd.Com

Author Details

This author has not updated his/her bio.

Related Posts

Post thumbnail
11 months ago

পবিত্র হজযাত্রার প্রস্তুতিতে যেসব বিষয় মনে রাখা দরকার

চলতি বছর বাংলাদেশি হজযাত্রীদের নিয়ে বাংলাদেশ বিমানের প্রথম হজ ফ্লাইট ২৪ জুলাই ঢাকা থেকে জেদ্দার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে। বিমান বাংলাদেশ...

Leave a Reply

Comment has been close by Administrator!